ব্যাংকে টাকা রাখবেন নাকি বিকাশ নগদে

লোনের সুদের হার সরকার কর্তৃক সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ নির্ধারণ করায় এর প্রভাব আমানতের সুদের হারের উপর গিয়ে পড়েছে। সাধারণত আমানত এবং লোনের সুদের হারের পার্থক্য ৩ শতাংশ থেকে সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ হয়ে থাকে। গত ০১ এপ্রিল, ২০২০ হতে লোনের এ সুদের হার কার্যকর হয়েছে বিধায় বর্তমানে আমানতের সুদের হার একেবারেই কম। বর্তমানে আমাদের দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর আমানতের গড় সুদের হার প্রায় ৪ শতাংশ থেকে ৬ শতাংশের মধ্যে সীমাবদ্ধ। অন্যদিকে আবগারি শুল্ক এবং লেনদেন একাউন্টের মেইনটেন্যান্স ফি তো আছে ই। এখন প্রশ্ন হলো তাহলে কোথায় বিনিয়োগ করলে সুদের হার বেশি পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর আমানতের উপর সুদের হার দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

নগদ
নগদ বাংলাদেশ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মোবাইল ফোন ভিত্তিক ডিজিটাল আর্থিক সেবা যা একটি অর্থ আদান-প্রদানের পরিষেবা প্রদান করে থাকে। নগদের মাধ্যমে টাকা আদান প্রদান ছাড়াও নগদে টাকা রাখলে সর্বোচ্চ ৭.৫০ শতাংশ মুনাফা পাওয়া যায়।

ব্যাংকে টাকা রাখবেন নাকি বিকাশ/নগদে

শর্তাবলি:

নগদ-এর সকল নিয়মিত গ্রাহক নিচের ছকে উল্লিখিত হারে মুনাফা পাবেন-

মুনাফার স্ল্যাববার্ষিক মুনাফা হার
৫০০১ টাকা থেকে ৩০০,০০০ টাকা৭.৫%
১০০১ টাকা থেকে ৫০০০.৯৯ টাকা৫.০%
০ টাকা থেকে ১০০০.৯৯ টাকা০.০%
  • মাসিক ভিত্তিতে মুনাফা প্রদান করা হবে ।
  • প্রতিদিনের মুনাফার হার হিসাব করে মাস শেষে মুনাফা প্রদান করা হবে ।
  • দেশের আইন অনুযায়ী প্রযোজ্য ট্যাক্স বা ভ্যাট কর্তনের পর সরাসরি নগদ অ্যাকাউন্টে মুনাফার অংশ পাঠিয়ে দেয়া হবে ।
  • গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্ট্যাটাস জনিত কোনো সমস্যার কারণে মুনাফা বিতরণ করা না গেলে, সে মাসে উক্ত গ্রাহক কোনো মুনাফা পাবেন না ।
  • মুনাফা লাভের জন্য গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট অবশ্যই চালু থাকতে হবে ।

‘নগদ’ কোনোরকম পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই, যেকোনো সময় ক্যাম্পেইনের যেকোনো শর্তাবলি পরিবর্তন বা পরিবর্ধন এমনকি ক্যাম্পেইন বাতিল করারও অধিকার সংরক্ষণ করে।

প্রযোজ্য আইন, রেগুলেটরি নির্দেশিকা কিংবা নিজস্ব নীতির উপর ভিত্তি করে, ‘নগদ’ মুনাফা বাতিল করার অধিকার সংরক্ষণ করে

মুনাফা সেবা বাতিলের পদ্ধতি

  • নগদ কল সেন্টার নম্বর (১৬১৬৭)-এ কল করে, ‘সার্ভিস রিকোয়েস্ট’-এর মাধ্যমে গ্রাহক তার মুনাফা সেবা গ্রহণ বা বাতিল করতে পারেন
  • গ্রাহকের অনুরোধ সফলভাবে গৃহীত হলে সে ব্যাপারে তাকে অবগত করা হবে

BKASH NAGADবিকাশ

জমানো টাকার উপর ইন্টারেস্ট। টাকা নিরাপদে রাখার পাশাপাশি, আপনি বিকাশ একাউন্টে টাকা জমিয়ে বছরে ৪% পর্যন্ত ইন্টারেস্ট পেতে পারেন।

ইন্টারেস্ট শুধুমাত্র বিকাশ কাস্টমারের জন্য প্রযোজ্য।

ইন্টারেস্ট রেটঃ

ব্যালেন্স/স্ল্যাব (টাকা)বাৎসরিক হার
১,০০০ – ৫,০০০.৯৯১.৫%
৫,০০১ –১৫,০০০.৯৯২%
১৫,০০১ – ৫০,০০০.৯৯৩%
৫০,০০১ এবং এর অধিক৪%

উদাহরণস্বরুপ, আপনার বিকাশ একাউন্টে যদি একটি মাসজুড়ে কমপক্ষে ১,০০০ টাকা থাকে, ঐ মাসে ২ টি লেনদেন করেন এবং ঐ মাসের গড় ব্যালেন্স যদি ১,০০০ থেকে ৫,০০০.৯৯ টাকার মধ্যে থাকে তাহলে আপনি ঐ মাসের গড় ব্যালেন্সের উপর ১.৫% বাৎসরিক হারে ইন্টারেস্ট পাবেন।

ইন্টারেস্ট পাবার শর্তসমূহঃ

  • আপনার KYC ফরম বিকাশ কর্তৃক গৃহীত হতে হবে এবং আপনার একাউন্টটি একটিভ থাকতে হবে।
  • মাসে কমপক্ষে আপনাকে ২ টি আর্থিক লেনদেন (“ক্যাশইন”, “ক্যাশআউট”, “ATM ক্যাশআউট”, “পেমেন্ট”, “ সেন্ডমানি” অথবা “ ​মোবাইল রিচার্জ ​”) করতে হবে।
  • মাসজূড়ে প্রতি দিনশেষে আপনার একাউন্টে কমপক্ষে ১,০০০ টাকা ব্যালেন্স থাকতে হবে।
  • মাসশেষে প্রতিদিনের গড় ব্যাল্যান্সের উপর আপনার প্রাপ্ত ইন্টারেস্টের পরিমান হিসাব করা হবে।
  • সরকারী নিয়ম অনুযায়ী ভ্যাট এবং ট্যাক্স কর্তন সাপেক্ষ্যে বছরে দুই দফায় আপনার একাউন্টে ইন্টারেস্ট প্রদান করা হবে।

ইন্টারেস্ট সেবা চালু করাঃ

উপরোক্ত শর্ত পালনের মাধ্যমে সকল নতুন এবং পুরাতন বিকাশ কাস্টমারগণ তাদের বিকাশ একাউন্টে ইন্টারেস্ট পাবেন। সেবাটি চালু করার জন্যে কিছুই করতে হবেনা।

ইন্টারেস্ট গ্রহণ বন্ধ করাঃ

আপনার একাউন্টে ইন্টারেস্ট গ্রহণ করতে না চাইলে নীচের ধাপগুলো অনুসরণ করুনঃ

  • আপনার বিকাশ একাউন্ট নম্বর থেকে 16247 এ কল করুন।
  • ভাষা নির্বাচন করুন (বাংলার জন্যে ১ এবং ইংরেজির জন্যে ২ )।
  • জমানো টাকার উপর ইন্টারেস্ট এবং অন্যান্য তথ্যের জন্য ৫ চাপুন।
  • ইন্টারেস্ট সংক্রান্ত তথ্যের জন্যে ১ চাপুন।
  • ইন্টারেস্ট গ্রহণ বন্ধ করতে ১ চাপুন (সেবাটি পূর্বে বন্ধ করা থাকলে পুনরায় চালু করতে চাইলে ২ চাপুন)।
  • আপনার অনুরোধটি গৃহীত হলে আপনাকে মেসেজ এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

Recommended For You

About the Author: এডমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *