বাড়ি ভাড়ার জন্য মাসে কত টাকা ব্যয় করা উচিত

বাংলাদেশের বিভিন্ন শহরগুলোতে বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধি পেয়েই চলছে, যেমনটা বৃদ্ধি পাচ্ছে মৃত্যু এবং আয় কর। বেতনের বা আয়ের প্রায় সমস্ত টাকাই চলে যায় বাড়ি ভাড়াসহ বিভিন্ন ধরনের খরচের পিছনে। কিন্তু আপনি জানেন কি যে আপনার বেতনের অথবা আয়ের কত শতাংশ বাড়ি ভাড়ার পিছনে খরচ করা উচিত?

বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন, বাড়ি ভাড়ার জন্য আয়ের ৩০ শতাংশের বেশি কোন ক্রমেই খরচ করা যাবে না। ২৫ শতাংশ হলে ভালো হয়। কারণ আয়ের ২৫ শতাংশ ব্যয় করে আপনি যদি বাড়ি ভাড়া করেন, তাহলে একটু ভালো মানের বাড়িতে জীবন যাপন করতে পারবেন।

নমনীয় হন
মনে রাখবেন, আপনার সার্বিক অবস্থার উপর নির্ভর করে আপনার নমনীয় থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি বড় কোন শহরে বা রাজধানীতে বাস করেন, তাহলে আপনাকে অধিক পরিমাণ টাকা ভাড়ার জন্য গুনতে হবে কিন্তু আপনাকে সার্বিক বিষয়ে নমনীয় থাকতে হবে। যেমন ধরুন, আপনি অফিসের কাছাকাছি বাসা ভাড়া নিলেন। এতে একদিকে যেমন আপনার পরিবহন খরচ বেঁচে যাবে, অন্যদিকে আপনার অনেক সময়ও বাঁচবে। এক্ষেত্রে আপনি সেই সময়টা অন্য কোন আয় করার কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।

বাড়ি ভাড়ার জন্য মাসে কত টাকা ব্যয় করা উচিত।

কিভাবে সমন্বয় করবেন
আপনি কোথায় থাকেন, সেটা বড় কথা নয়। আপনার ব্যক্তিগত স্প্রেডশীটটি একটু আলাদাভাবে দেখুন। ৫০/২০/৩০ এই সূত্র এর মত একটি মৌলিক বাজেট পদ্ধতি বিবেচনা করে গ্রহণ করুন। বাড়ি ভাড়া, পরিবহন, খাদ্য এবং ইউটিলিটিগুলির মতো প্রয়োজনীয় ব্যয়গুলিতে আপনার নেট বেতনের বা আয়ের ৫০ শতাংশের বেশি খরচ করা উচিৎ নয়।

আরো পড়তে পারেন:  কিভাবে সঞ্চয় বাড়াবেন

২০ শতাংশ ভবিষ্যৎ শক্তিশালী আর্থিক ভিত্তি তৈরী করার জন্য যেমন রিটায়ারমেন্ট কন্ট্রিবিউশন, সঞ্চয়, ঋণ পরিশোধ করার জন্য ব্যয় করা উচিৎ। আর বাকি ৩০ শতাংশ প্রয়োজনীয় লাইফস্টাইল এর জন্য যেমন মোবাইল বিল, ইন্টারনেট বিল, ডিশ সংযোগের বিল, ব্যক্তিগত যত্ন, বাইরে যাওয়া, কেনাকাটা এবং ভ্রমণ ইত্যাদির জন্য ব্যয় করা উচিৎ।

বাড়ি ভাড়ার জন্য ব্যয়

নিরাপদ থাকুন
আর্থিক নিরাপত্তার কথা সব সময় মাথায় রাখুন। খুব বেশি প্রয়োজন না হলে নামি দামি ফ্ল্যাটে থাকার দরকার নেই। যখন আপনার খরচ বৃদ্ধি পেতে থাকবে তখন স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার সঞ্চয় কমতে থাকবে এবং আপনার ভবিষ্যৎ আর্থিক নিরাপত্তা ঝুঁকিপূর্ণ হতে থাকবে।

অন্যান্য আবশ্যিক খরচের সাথে তুলনা করেই কেবল আপনার বাজেট তৈরি করা উচিৎ। তাহলে আপনার ইমার্জেন্সি ফান্ড তৈরি হবে। ওয়ারেন বাফেট বলেছেন, “ব্যয় করার পরে যা রেখেছেন তা সঞ্চয় না করে আপনি সঞ্চয় করার পরে যা রেখেছেন তা ব্যয় করুন।”

Recommended For You

About the Author: এডমিন