কি কি কারণে চেক ডিজঅনার হয়

নানা কারণে চেক ডিজঅনার হতে পারে। চেক ডিজঅনার হলে ভয়ের কোন কারণ নেই। চেক ডিজঅনার সংক্রান্ত আইন রয়েছে। চেক ডিজঅনার হলে চেকের বেনিফিশিয়ারি চাইলে চেক প্রদানকারীর বিরুদ্ধে চেক ডিজঅনার মামলা করতে পারেন। চেক ডিজঅনার করার নিয়ম রয়েছে। কি কি কারণে চেক ডিজঅনার হতে পারে তার কিছু তালিকা নিম্নে প্রদান করা হল-CHEQUE DISHONOURED১। একউন্টে পর্যাপ্ত তহবিল না থাকলে বা চেকে উল্লিখিত পরিমান টাকার চেয়ে একউন্টে কম টাকা থাকলে চেক ডিজঅনার হতে পারে ।
২। চেকে উল্লিখিত টাকার পরিমানের সাথে সংখ্যা লেখা এবং কথায় লেখার মধ্যে পার্থক্য থাকলে ।
৩। চেকের মেয়াদ চেক ইস্যুর তারিখ থেকে ৬ মাসের বেশি অতিক্রান্ত হলে।
৪। তারিখবিহীন চেক উপস্থাপন করা হলে ।
৫। যে তারিখে চেক উপস্থাপন করা করা হবে, চেকে উল্লিখিত তারিখ উপস্থাপিত তারিখের পরের তারিখ হলে ।
৬। চেক প্রদানকারীর স্বাক্ষর না থাকলে বা স্বাক্ষরে কোন প্রকার পার্থক্য থাকলে অথবা স্বাক্ষরে কিছুটা অমিল থাকলে ।
৭। চেক প্রদানকারী কর্তৃক চেক স্টপ করে রাখলে।
৮। তিন বারের বেশি চেক উপস্থাপন করা হলে।
৯। অসম্পূর্ন চেক হলে অথবা এনডোর্সমেন্ট না থাকলে।
১০। চেকে জাল এনডোর্সমেন্ট প্রদান করলে।
১১। চেকের মধ্যে কোন ধরণের পরিবর্তন বা পরিবর্তনের চেষ্টা করলে যেমন – প্রাপকের নাম / টাকার পরিমান / হিসাব নাম্বার, রাউটিং নাম্বার, চেক নাম্বার ইত্যাদি ।
১২। জাল স্বাক্ষর অথবা অননুমোদিত স্বাক্ষর।
১৩। কর্পোরেট সীল না থাকা।
১৪। সঠিক টাকার পরিমান, চেক নাম্বার এবং হিসাব নাম্বার না থাকা ।
১৫। সঠিক ব্যাংক/শাখায় চেক উপস্থাপন করা না হলে ।
১৬। হিসাব বন্ধ / ডরমেন্ট / ব্লক করা থাকলে ।
১৭। গ্রাহকের কাছ থেকে চেক অনারের নির্দেশনা পাওয়া না গেলে ।
১৮। ডুপ্লিকেট চেক উপস্থাপন করা। যে চেক পূর্বে পেমেন্ট করা হয়েছে।
১৯। সঠিক চেক গ্রহীতা না হলে (চেক প্রদানকারীর নির্দেশনার সাথে চেক গ্রহীতার মিল পাওয়া না গেলে) ।
২০। হাই ভ্যালু চেক অনুপযুক্ত শাখায় উপস্থাপন করা।
২১। চেক একটিভেট করা না থাকলে।
২২। চেকে উল্লেখিত টাকার পরিমান এবং গ্রাহক কর্তৃক নির্দেশনার মাধ্যমে প্রদানকৃত টাকার পরিমান একই না হলে।
২৩। চেক পেমেন্ট করার জন্য ৭ দিন পূর্বে ব্যাংকে নোটিশ প্রদান করা না থাকলে।
২৪। টেস্ট কী প্রয়োজন / ভিন্ন হলে ।
২৫। ক্রেডিট লিমিট অতিক্রম করলে।
২৬। ট্রান্সাকশন প্রোফাইল (টিপি) অতিক্রম করলে।
২৭। রেভিনিউ স্ট্যাম্প প্রয়োজন হলে / না থাকলে।
২৮। স্টাম্পের উপর সীল এবং স্বাক্ষর প্রয়োজন হলে।
২৯। বাজেট প্রয়োজন হলে / চেক প্রদানকারী কর্তৃক রেফার হলে।
৩০। চেকের ভ্যালিডেশনের প্রয়োজন হলে।
৩১। চেকে উল্লিখিত তথ্য এবং এমআইসিআর ডাটা একই না হলে।
৩২। চেক হোল্ড করে রাখলে।
৩৩। চেকের মূল মালিক ব্যতিত চেকের বেনিফিশিয়ারি অথবা বাহক কর্তৃক চেক উপস্থাপিত হলে উক্ত ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা অন্য কোন পরিচয়পত্র না থাকলেও চেক ডিজঅনার হতে পারে।
৩৪। চেক ছেঁড়া হলে।
৩৫। এমআইসিআর মেশিনে চেক রিড না করলেও চেক ডিজঅনার হতে পারে।

Recommended For You

About the Author: এডমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *