ডেবিট, ক্রেডিট এবং এটিএম কার্ডের সাইজ একই রকম হয় কেন?

সম্ভবত আপনি কখনো চিন্তাও করেননি যে, কেন ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড এবং এটিএম কার্ডের আকার-আকৃতি একই রকমের হয়ে থাকে। আপনার পাশে যে লোকটি বসে আছে তার ক্রেডিট কার্ডের ক্রেডিট লিমিট, আপনার ক্রেডিট কার্ডের সমান না হলেও, আপনাদের দুজনের মধ্যে কিন্তু একটা জিনিস মিল আছে, আর তা হল আপনাদের ক্রেডিট কার্ডের সাইজ কিন্তু একই।

কার্ডক্রেডিট কার্ডের ধারণা আনা হয়েছিল ১৯০০ সালের শুরুর দিকে। ১৯৫৮ সালে ব্যাংক অব আমেরিকা, প্রথম ক্রেডিট কার্ড বাজারে এনেছিল। প্রথম ক্রেডিট কার্ড তৈরি করা হয়েছিল মানিব্যাগ, এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ রেখে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন (আইএসও) তে একটা নির্দিষ্ট স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারণ করার জন্য সেগুলো তৈরি করা হয়েছিল।

আইএসও মূলত খেলনা থেকে শুরু করে কার্ডের সাইজ পর্যন্ত স্ট্যান্ডার্ড ঠিক করে থাকে। আইএসও/আইইসি ৭৮১০:২০০৩ কার্ডের আকার নির্ধারণ করে। আইএসও এবং ইন্টারন্যাশনাল ইলেক্ট্রোটেকনিক্যাল কমিশন (আইইসি) দ্বারা কার্ডের এ আকার নির্ধারণ করা হয়েছিল। ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড এবং এটিএম কার্ডগুলো তৈরি করা হয় আইডি-১ ক্যাটাগরির মাধ্যমে। তার মানে হল, এই কার্ডগুলো তৈরি করতে ১৫.৬ মিলিমিটার X ৫.৮ মিলিমিটার অথবা ৩.৩৭৫ ইঞ্চিX ২.৫ ইঞ্চি সাইজ প্রয়োজন হয়। এখানে আরেকটি উল্লেখ্য বিষয় হল যে, কার্ড যে ধরনেরই হোক না কেন তার পুরুত্ব ০.৭৬ মিলিমিটার হয়।

কার্ডের সাইজসময়ের পরিবর্তনে ক্রেডিট কার্ডের ধারণা পাল্টেছে বটে, কিন্তু তার আকার-আকৃতির কোন পরিবর্তন হয়নি। প্রযুক্তির পরিবর্তনের কারণে ম্যাগনেটিক কার্ড এর পরিবর্তে যদিও এখন ইএমভি (ইউরোপে, মাস্টারকার্ড, ভিসা) চিপ যুক্ত কার্ড ব্যবহার করা হয়, তবুও কার্ডের সাইজ একই রকম রয়ে গেছে।

Recommended For You

About the Author: এডমিন